রবিবার, জুলাই 14, 2024
Google search engine
হোমজাতীয়দেশের মানুষ বিএনপিকে কখনো ভুলবেনা : মির্জা ফখরুল

দেশের মানুষ বিএনপিকে কখনো ভুলবেনা : মির্জা ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক:

মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সামনে আমাদের কঠিন সময় অপেক্ষা করছে। এই ফ্যাসিবাদ সরকার সমস্ত রাষ্ট্রযন্ত্র দখল করে রেখেছে। দেশের অর্থনীতিকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে গেছে। যখনই আওয়ামী লীগ দেশের ক্ষমতায় আসে, এতো বেশি দুর্নীতি আর লুটপাট করে যে তখন অর্থনীতি আর টিকে থাকতে পারে না। 

মঙ্গলবার(১১ জনু) বিকেলে সদর উপজেলায় গিলন্ড এলাকায় মুন্নু সিটিতে জিয়াউর রহমানের ৪৩তম শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে ঢাকা বিভাগ বিএনপি আয়োজিত সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, জিয়াউর রহমানের রাজনীতি এই দেশের মানুষের রাজনীতি, বিএনপির রাজনীতি দেশের মানুষের জন্য। এ জন্য কখনোই এ দেশের মানুষ বিএনপি ও জিয়াউর রহমানকে ভুলবে না। এ কারণেই বিএনপি এখনো বাংলাদেশের মানুষের কাছে সব থেকে বেশি শক্তিশালী এবং ভালো অবস্থানে আছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, জিয়াউর রহমান খুবই অল্প সময়ের জন্য রাষ্ট্র পরিচালনা করেছিলেন। দেশের চরম ক্রান্তিকাল ও দুঃসময়ে তিনি দুইবার আবির্ভূত হয়েছিলেন। যখন দেশের মানুষ রাজনৈতিক ঘোষণার জন্য অপেক্ষায় ছিল, যেই ঘোষণার মধ্য দিয়ে তাদের লক্ষ্য স্বাধীনতা পাবে। তিনিই বহুদলীয় গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে নিয়ে এসেছিলেন। দেশের  ধ্বংস হয়ে যাওয়া অর্থনীতিকে জিয়াউর রহমান টেনে তুলেছিলেন।

দেশের সুনামধন্য অর্থনীতিবিদরা বলছেন, দেশের অর্থনীতি বিপর্যয়ের মধ্যে রয়েছে। কিন্তু তারা (আওয়ামী লীগ) স্বীকার করতে চায় না, সব সময় বলে অর্থনীতি ভালো আছে। মেগা প্রকল্প দিয়ে মেগা দুর্নীতির ব্যবস্থা করছে আওয়ামী লীগ।

দেশে বড় বড় মেগা প্রকল্পের অর্থায়ন করছে চায়না। এসব প্রকল্পের বিপুল পরিমাণ অর্থ চায়না বাংলাদেশ সরকারকে দেয় এবং সরকার সেই প্রকল্পের কাজ করার জন্য দরপত্র আহ্বান করে। আওয়ামী লীগ সরকারের মদদপুষ্ট একজন অথবা দুইজন ব্যক্তি ওই বিপুল পরিমাণ অর্থ আনার জন্য শতকরা ৫ ভাগ কমিশন পায় এবং কাজ বণ্টন করার পরে আবারও শতাকরা ৫ ভাগ কমিশন পাচ্ছে। চীন থেকে যে টাকা আনা হচ্ছে সেই টাকার কমিশনে ভাগ বসাচ্ছে। আজকে প্রতিটি ক্ষেত্রে কমিশন ছাড়া তারা কোনো কাজ করে না। সরকারের অন্যতম আর্থিক প্রতিষ্ঠান নগদ, এই নগদে লেনদেন করলে প্রতি এক টাকায় ৫ পয়সা কমিশন পায়, এই কমিশন কোথায় যায়। এই কমিশন বিশেষ কোনো ব্যক্তির কাছে যায়, দেশের বাহিরে যায়।

তিনি বলেন, এখন আওয়ামী লীগ আর আওয়ামী লীগ নাই। এটা হচ্ছে আজিজ আর বেনজীরের আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগ এখন রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠান নয়। তারা চরমভাবে দেউলিয়া হয়ে গেছে। তাই সম্পূর্ণভাবে দুর্নীতিবাজ আমলাদের ওপরে, দুর্নীতিবাজ কর্মচারীদের সঙ্গে আঁতাত করে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় টিকে থাকতে হচ্ছে।

বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদের সভাপতিত্বে সেমিনারে অধ্যাপক ড. দিলারা চৌধুরী, অধ্যাপক ড. তাজমেরী ইসলাম, অধ্যাপক ড. মামুন আহমেদ, অধ্যাপক ড. কামরুল হাসান, মানিকগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি আফরোজা খান রিতা বক্তব্য দেন।

অনুরূপ সংবাদ

জনপ্রিয় পোস্ট